স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যা মামলায় স্বামীর যাবজ্জীবন

টাঙ্গাইলে দেড় লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার দায়ে স্বামীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমিন।মঙ্গলবার (৫ জুলাই) দুপুরে আসামির উপস্থিতিতে বিচারক এ রায় ঘোষণা করেন। দণ্ডিত ব্যক্তি টাঙ্গাইল পৌর শহরের আদি টাঙ্গাইল এলাকার মৃত আব্দুস সালামের ছেলে মো. সুজন মিয়া (৩৫)।

টাঙ্গাইল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর (এপিপি) মোহাম্মদ আব্দুল কুদ্দুস বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।তিনি জানান, প্রায় ১৪ বছর আগে মো. সুজন মিয়ার সঙ্গে আদি টাঙ্গাইল দাসপাড়া এলাকার শিউলি আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর দেড় লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে তার স্বামী বিভিন্ন সময় শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতেন।

২০১৪ সালের ১৭ জুন বেলা ১১টার দিকে সুজন ঘরের দরজা বন্ধ করে যৌতুকের টাকার জন্য স্ত্রীকে মারধর করেন। এরপর পরিকল্পিতভাবে কেরোসিন ঢেলে স্ত্রীর শরীরে আগুন ধরিয়ে দেন।এপিপি আব্দুল কুদ্দুস আরও জানান, এসময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে শিউলিকে উদ্ধার করে প্রথমে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়।

পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। ঘটনার পরদিন চিকিৎসাধীন শিউলী আক্তারের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় তার ভাই মো. শিবলু মিয়া বাদী হয়ে ২০১৪ সালের ১৮ জুন টাঙ্গাইল সদর থানায় হত্যা মামলা করেন। পরে দীর্ঘ বিচার কার্যক্রম শেষে বিচারক মঙ্গলবার এ রায় ঘোষণা করেন।

Check Also

অটোরিক্সা চালক মিনার ছেলে পড়ে ইংলিশ মিডিয়ামে, স্বপ্ন হার্টের ডাক্তার বানানো

রিক্সা চালানো পেশায় নারী! এমনটা চোখে পড়ে না। শ্রী মিনা চৌধুরী। বাড়ি বগুড়া সদরের শাখারিয়ার …